ঢাকা ০১:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার দেখুন

সড়কে উল্টে গেল পিকআপ

  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ০৩:১৯:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ এপ্রিল ২০২৩
  • ৬৩০ বার পঠিত

ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কের মীরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ এলাকায় পিকআপ চাপায় প্রাণ গেল পিতা পুত্রের। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হাইওয়ে পুলিশ জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সীতাকুণ্ড থেকে ঈদের কেনাকাটা করে বাড়ি ফিরছিলেন ওয়াহেদপুর এলাকার ডিস ব্যবসায়ী সেলিম উদ্দিন (৩৪) ও তার একমাত্র পুত্র ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র মিনহাজ উদ্দিন (১০)। বড়দারোগারহাট গাড়ি থেকে নেমে তারা মহাসড়কের পাশ দিয়ে হেঁটে জাফরাবাদ এলাকা অতিক্রমকালে তরমুজ বোঝাই একটি পিকআপ রাস্তার উপর উল্টে গিয়ে পিতা পুত্রকে চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

কুমিরা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ শাহাদাত হোসেন জানান, ঘটনা শুনে হাইওয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘাতক পিকআপটি আটক করে। পিকআপ চালক ও হেলপারকে আহত অবস্থায় চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের নাম ঠিকানা এখনো জানা যায়নি।

এদিকে নিহত সেলিম ও তার পুত্রের ঈদের জন্য কেনা জামাকাপড় হাতে নিয়ে সেলিমের স্ত্রী ও ছোট কন্যা শোকে যেন পাথর হয়ে গেছেন। এই ঘটনায় ওয়াহেদপুর গ্রামে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

ট্যাগস :

আপনার মতামত লিখুন

সড়কে উল্টে গেল পিকআপ

আপডেট সময় ০৩:১৯:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ এপ্রিল ২০২৩

ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কের মীরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ এলাকায় পিকআপ চাপায় প্রাণ গেল পিতা পুত্রের। গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হাইওয়ে পুলিশ জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে সীতাকুণ্ড থেকে ঈদের কেনাকাটা করে বাড়ি ফিরছিলেন ওয়াহেদপুর এলাকার ডিস ব্যবসায়ী সেলিম উদ্দিন (৩৪) ও তার একমাত্র পুত্র ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র মিনহাজ উদ্দিন (১০)। বড়দারোগারহাট গাড়ি থেকে নেমে তারা মহাসড়কের পাশ দিয়ে হেঁটে জাফরাবাদ এলাকা অতিক্রমকালে তরমুজ বোঝাই একটি পিকআপ রাস্তার উপর উল্টে গিয়ে পিতা পুত্রকে চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

কুমিরা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ শাহাদাত হোসেন জানান, ঘটনা শুনে হাইওয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘাতক পিকআপটি আটক করে। পিকআপ চালক ও হেলপারকে আহত অবস্থায় চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের নাম ঠিকানা এখনো জানা যায়নি।

এদিকে নিহত সেলিম ও তার পুত্রের ঈদের জন্য কেনা জামাকাপড় হাতে নিয়ে সেলিমের স্ত্রী ও ছোট কন্যা শোকে যেন পাথর হয়ে গেছেন। এই ঘটনায় ওয়াহেদপুর গ্রামে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।