ঢাকা ০৪:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার দেখুন

খাগড়াছড়ির ১৯ কেন্দ্রে একটি ভোটও পড়েনি

  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ১০:০৩:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪
  • ৫২৬ বার পঠিত

খাগড়াছড়ি :: খাগড়াছড়ির একমাত্র আসনে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৯টি কেন্দ্রে একটি ভোটও পড়েনি। এছাড়া আরও ৬টি কেন্দ্র মিলে মাত্র ১৯টি ভোট পড়েছে।

এছাড়া জেলার পানছড়ি উপজেলার ২৪টি কেন্দ্রের ১১টিতে শূন্য ভোট এবং দক্ষিণ লতিবান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি ভোট পড়ে। পানছড়ির সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা অঞ্জন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।দী

ঘিনালা উপজেলায় ৩টি কেন্দ্রে শূন্য ভোট পড়েছে। আরও ৫টি কেন্দ্রে সব মিলিয়ে ভোট দিয়েছেন ১৮ জন ভোটার।

লক্ষীছড়িতে ১২টি কেন্দ্রের ৫টিতেই কোনো ভোট পড়েনি। এর মধ্যে বর্মাছড়ি ইউনিয়নের ৪টি ও সদর ইউনিয়নের ১টি কেন্দ্র রয়েছে।

স্ব-স্ব উপজেলায় নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা কেন্দ্রে এসব তথ্য জানানো হয়। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো.  সহিদুজ্জামান এখনও এ বিষয়ে কথা বলেননি।

এসব কেন্দ্রগুলো মূলত প্রসিত খীসা’র নেতৃত্বাধীন আঞ্চলিক সংগঠন ‘ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)’-এর প্রভাবিত এলাকা। দলটির পক্ষ থেকে নির্বাচনে বাধা ও বিধি নিষেধের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

ইউপিডিএফ’র সংগঠক অংগ্য মারমা সরকারি দলের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সরকারের নীল নকশার নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে ভোটাররা। এটা জনগণের মৌন প্রতিবাদ।

::সূত্র-দেশ রূপান্তর::

ট্যাগস :

আপনার মতামত লিখুন

খাগড়াছড়ির ১৯ কেন্দ্রে একটি ভোটও পড়েনি

আপডেট সময় ১০:০৩:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

খাগড়াছড়ি :: খাগড়াছড়ির একমাত্র আসনে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৯টি কেন্দ্রে একটি ভোটও পড়েনি। এছাড়া আরও ৬টি কেন্দ্র মিলে মাত্র ১৯টি ভোট পড়েছে।

এছাড়া জেলার পানছড়ি উপজেলার ২৪টি কেন্দ্রের ১১টিতে শূন্য ভোট এবং দক্ষিণ লতিবান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি ভোট পড়ে। পানছড়ির সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা অঞ্জন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।দী

ঘিনালা উপজেলায় ৩টি কেন্দ্রে শূন্য ভোট পড়েছে। আরও ৫টি কেন্দ্রে সব মিলিয়ে ভোট দিয়েছেন ১৮ জন ভোটার।

লক্ষীছড়িতে ১২টি কেন্দ্রের ৫টিতেই কোনো ভোট পড়েনি। এর মধ্যে বর্মাছড়ি ইউনিয়নের ৪টি ও সদর ইউনিয়নের ১টি কেন্দ্র রয়েছে।

স্ব-স্ব উপজেলায় নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা কেন্দ্রে এসব তথ্য জানানো হয়। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো.  সহিদুজ্জামান এখনও এ বিষয়ে কথা বলেননি।

এসব কেন্দ্রগুলো মূলত প্রসিত খীসা’র নেতৃত্বাধীন আঞ্চলিক সংগঠন ‘ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)’-এর প্রভাবিত এলাকা। দলটির পক্ষ থেকে নির্বাচনে বাধা ও বিধি নিষেধের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

ইউপিডিএফ’র সংগঠক অংগ্য মারমা সরকারি দলের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সরকারের নীল নকশার নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে ভোটাররা। এটা জনগণের মৌন প্রতিবাদ।

::সূত্র-দেশ রূপান্তর::