ঢাকা ১১:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বোয়ালখালীতে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ  পোপাদিয়া শাখার শুকনা ইফতার বিতরন Logo বোয়ালখালীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ Logo কক্সবাজারগামী ট্রেনের ধাক্কায় বোয়ালখালীতে একজনের মৃত্যু Logo বোয়ালখালীতে ট্রাক উল্টে চালকের মৃত্যু Logo রাষ্ট্রপতির কাছে বিচার চাইলেন যৌন নিপীড়নের শিকার জবি শিক্ষার্থী মিম Logo নগরের প্রাণকেন্দ্রে নকল ওষুধের ডিপো! Logo ই-পাসপোর্টে আর থাকছে না স্বামী-স্ত্রীর নাম Logo সব জিআই পণ্যের তালিকা করার নির্দেশ হাইকোর্টের Logo এক বছরে ১ লাখ ২০ হাজার মাদক কারবারি গ্রেপ্তার Logo চট্টগ্রাম মহানগর কাপ্তাই রাস্তার মাথা কালুরঘাট টোকেন বাণিজ্য চাঁদাবাজীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ
ই-পেপার দেখুন

 না ফেরার দেশে সংসদ সদস্য মোসলেম 

  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ১১:২০:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • ৭৩২ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি :- মুক্তিযোদ্ধা, প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ ও চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দীন আহমদ এমপি আজ (৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা ৩৭মিনিটে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি দীর্ঘদিন দুরারোগ্যব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি এস. এম বোরহান উদ্দীন বরাত দিয়ে জানা যায়, দীর্ঘদিন দুরারোগ্যব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন এমপি  মোছলেম উদ্দীন। দেশ বিদেশে চিকিৎসাও নেন তিনি।

সোমবার রাত ১২টা ৩৭মিনিটে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন বলেও জানান।
সাংসদ মোছলেম বাড়ি চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার কধুরখীল গ্রামে। তার স্ত্রী, চার, মেয়ে রয়েছে।

মোছলেম চট্টগ্রাম -৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসন থেকে ২০২০ সালে উপ-নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

উল্লেখ্য, মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মোছলেম উদ্দীন আহমেদ ১৯৬৯ সালে চট্টগ্রাম কমার্স কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও পরে চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালে চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। পরে ১৯৭২ সালে ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। বাবুর মৃত্যুর পর মোছলেম উদ্দিন আহমেদ সাত বছর ধরে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০২২ সালে ১২ ডিসেম্বরে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হয়।

ট্যাগস :

আপনার মতামত লিখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

বোয়ালখালীতে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ  পোপাদিয়া শাখার শুকনা ইফতার বিতরন

 না ফেরার দেশে সংসদ সদস্য মোসলেম 

আপডেট সময় ১১:২০:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধি :- মুক্তিযোদ্ধা, প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ ও চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দীন আহমদ এমপি আজ (৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা ৩৭মিনিটে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি দীর্ঘদিন দুরারোগ্যব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি এস. এম বোরহান উদ্দীন বরাত দিয়ে জানা যায়, দীর্ঘদিন দুরারোগ্যব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন এমপি  মোছলেম উদ্দীন। দেশ বিদেশে চিকিৎসাও নেন তিনি।

সোমবার রাত ১২টা ৩৭মিনিটে ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন বলেও জানান।
সাংসদ মোছলেম বাড়ি চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার কধুরখীল গ্রামে। তার স্ত্রী, চার, মেয়ে রয়েছে।

মোছলেম চট্টগ্রাম -৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসন থেকে ২০২০ সালে উপ-নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

উল্লেখ্য, মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মোছলেম উদ্দীন আহমেদ ১৯৬৯ সালে চট্টগ্রাম কমার্স কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও পরে চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালে চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। পরে ১৯৭২ সালে ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। বাবুর মৃত্যুর পর মোছলেম উদ্দিন আহমেদ সাত বছর ধরে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০২২ সালে ১২ ডিসেম্বরে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হয়।