ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo সাংবাদিক মুহাম্মদ মহিউদ্দিনের পিতার ইন্তেকাল Logo প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উদযাপন করেছেন বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগ Logo প্রধানমন্ত্রীর ৭৬ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গৃহহীনকে ঘর করে দিলেন যুবলীগ নেতা Logo লেবু বিক্রি করে সংসার ও মেয়ের চিকিৎসা করেন অন্ধ শকু Logo শাহছূফী হযরত আবদুল মাবুদ আলকাদেরী‘র পবিত্র  বার্ষিক ওরশ মোবারক যথাযোগ্য মর্যাদায় সম্পন্ন  Logo ৮দিন পর সচল ডেমু ট্রেন Logo সৈয়দ খাজা ইউসুফ আহমদ শাহ আল চিশতী আল খিতাপচরি ৪৪ তম বার্ষিক ওরস শরিফ মহা-সমারোহে অনুষ্ঠিত Logo আজ বোয়ালখালীতে আল্লামা আব্দুল মাবুদ (র.)’র ৩৬ তম বার্ষিক ওরশ শরীফ Logo বোয়ালখালীতে পরীক্ষা কেন্দ্রে অভিভাবকদের বসার ব্যবস্থা করলেন আমুচিয়া শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ Logo বোয়ালখালীতে ৬ কেন্দ্রের অভিভাবকদের বসার ব্যবস্থা করলেন এমপি মোছলেম

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে নিরপেক্ষ কমিশন

ই-পেপার দেখুন >>> ই-পেপার দেখুন >>>
  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ০৬:২৬:০৯ অপরাহ্ণ, রবিবার, ১৫ আগস্ট ২০২১
  • ৫৮৮ বার পঠিত

কালেরপত্র ডেষ্ক :

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে নিরপেক্ষ কমিশন গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

রবিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে ঢাকার তেজগাঁও রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে ‘বঙ্গবন্ধু গ্যালারি’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের সমন্বয়ে এ কমিশন গঠন করা হবে। কমিশনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলব ও নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করা হবে। জিয়াউর রহমানসহ সবার পরিচয়, সবার ন্যাক্কারজনক কাজ সাক্ষ্যপ্রমাণসহ জনসম্মুখে উপস্থাপন করা হবে।

আনিসুল হক বলেন, দীর্ঘদিন ইনডেমনিটি নামক কালো আইন দ্বারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের বিচার বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কালো আইন বাতিলের মাধ্যমে তার পিতা-মাতাসহ আপনজনদের হত্যাকাণ্ডের বিচার শেষ করেছেন।

‘এই হত্যাকাণ্ডের বিচারে দণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ খুনি বিদেশে পালিয়ে আছেন। তাদের ফিরিয়ে এনে আদালতের রায় কার্যকর করার সবরকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

আইনমন্ত্রী আশ্বস্ত করে বলেন, পলাতক পাঁচ খুনির ফাঁসির রায় কার্যকর না করা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশের জনগণ ক্ষ্যান্ত হবে না।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন নিরহংকার, সাদামাটা মানুষ। তিনি অনেক বড় মাপের মানুষ হওয়া সত্ত্বেও সাধারণ জীবনযাপন করতেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মতো আমাদের চলতে হবে। তার আদর্শ ধারণ করতে হবে। ব্যক্তি শেখ মুজিব কি জিনিস ছিলেন সেটাও ধারণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সারওয়ার, নিবন্ধন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শদীদুল আলম ঝিনুক, আইন ও বিচার বিভাগের যুগ্ম-সচিব বিকাশ কুমার সাহা, সলিসিটর রুনা নাহিদ সহ নিবন্ধন অধিদফতরের সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে আগে নিবন্ধন অধিদফতর প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপন করেন আইনমন্ত্রী।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

সাংবাদিক মুহাম্মদ মহিউদ্দিনের পিতার ইন্তেকাল

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে নিরপেক্ষ কমিশন

আপডেট সময় ০৬:২৬:০৯ অপরাহ্ণ, রবিবার, ১৫ আগস্ট ২০২১

কালেরপত্র ডেষ্ক :

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে নিরপেক্ষ কমিশন গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

রবিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে ঢাকার তেজগাঁও রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে ‘বঙ্গবন্ধু গ্যালারি’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের সমন্বয়ে এ কমিশন গঠন করা হবে। কমিশনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কুশীলব ও নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করা হবে। জিয়াউর রহমানসহ সবার পরিচয়, সবার ন্যাক্কারজনক কাজ সাক্ষ্যপ্রমাণসহ জনসম্মুখে উপস্থাপন করা হবে।

আনিসুল হক বলেন, দীর্ঘদিন ইনডেমনিটি নামক কালো আইন দ্বারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের বিচার বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কালো আইন বাতিলের মাধ্যমে তার পিতা-মাতাসহ আপনজনদের হত্যাকাণ্ডের বিচার শেষ করেছেন।

‘এই হত্যাকাণ্ডের বিচারে দণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ খুনি বিদেশে পালিয়ে আছেন। তাদের ফিরিয়ে এনে আদালতের রায় কার্যকর করার সবরকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

আইনমন্ত্রী আশ্বস্ত করে বলেন, পলাতক পাঁচ খুনির ফাঁসির রায় কার্যকর না করা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশের জনগণ ক্ষ্যান্ত হবে না।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন নিরহংকার, সাদামাটা মানুষ। তিনি অনেক বড় মাপের মানুষ হওয়া সত্ত্বেও সাধারণ জীবনযাপন করতেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মতো আমাদের চলতে হবে। তার আদর্শ ধারণ করতে হবে। ব্যক্তি শেখ মুজিব কি জিনিস ছিলেন সেটাও ধারণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সারওয়ার, নিবন্ধন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শদীদুল আলম ঝিনুক, আইন ও বিচার বিভাগের যুগ্ম-সচিব বিকাশ কুমার সাহা, সলিসিটর রুনা নাহিদ সহ নিবন্ধন অধিদফতরের সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে আগে নিবন্ধন অধিদফতর প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপন করেন আইনমন্ত্রী।