ঢাকা ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম

১১ দিনের মাথায় না ফেরার দেশে ফাহমিদা

  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ০৪:৩৭:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ মার্চ ২০২২
  • ৫৩০ বার পঠিত

চট্টগ্রামে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিয়ে করে আলোচিত সেই ফাহমিদা কামাল (২৫) অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন।সোমবার (২১ মার্চ) সকালে নগরীর বাকলিয়ায় নিজ বাসায় মৃত্যু হয় তার। তার পরিবারসূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ফাহমিদা কামালের নানা চট্টগ্রাম সিটি করপোশনের সাবেক কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন সাকীর জানান, হাসপাতালে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর ফাহমিদা হাসপাতাল থেকে বাসায় চলে যাওয়ার জন্য অস্থির হয়ে উঠেছিল। তার ইচ্ছেতেই কয়েকদিন আগে তাকে দক্ষিণ বাকলিয়ার বাসায় নেওয়া হয়। সেখানে আজ সকালে মৃত্যু হয় তার।

জানা যায়, কক্সবাজারের চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হকের ছেলে মাহমুদুল হাসান নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ আর চট্টগ্রাম নগরীর দক্ষিণ বাকলিয়াতে জন্ম নেওয়া ফাহমিদা কামাল আইইউবি থেকে বিবিএ ও এমবিএ শেষ করেন। শিক্ষাজীবনে দুজনের পরিচয়। একসময় তা প্রেমের সম্পর্কে রূপ নেয়। এরপর ফাহমিদার শরীরে বাসা বাধে মারণঘাতী ক্যান্সার।

তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা এভারকেয়ার পরবর্তীতে ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হসপিটালে নেওয়া হয়। সেখানে দীর্ঘ একবছর চিকিৎসার পর তার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই, এ কথা জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা। গত ৯ মার্চ রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালের বেডে বিয়ে করেন ফাহমিদা ও মাহমুদুল।

ট্যাগস :

বোয়ালখালী প্রেস ক্লাব আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ও প্রীতি সম্মাননা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

১১ দিনের মাথায় না ফেরার দেশে ফাহমিদা

আপডেট সময় ০৪:৩৭:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ মার্চ ২০২২

চট্টগ্রামে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিয়ে করে আলোচিত সেই ফাহমিদা কামাল (২৫) অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন।সোমবার (২১ মার্চ) সকালে নগরীর বাকলিয়ায় নিজ বাসায় মৃত্যু হয় তার। তার পরিবারসূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ফাহমিদা কামালের নানা চট্টগ্রাম সিটি করপোশনের সাবেক কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন সাকীর জানান, হাসপাতালে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর ফাহমিদা হাসপাতাল থেকে বাসায় চলে যাওয়ার জন্য অস্থির হয়ে উঠেছিল। তার ইচ্ছেতেই কয়েকদিন আগে তাকে দক্ষিণ বাকলিয়ার বাসায় নেওয়া হয়। সেখানে আজ সকালে মৃত্যু হয় তার।

জানা যায়, কক্সবাজারের চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হকের ছেলে মাহমুদুল হাসান নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ আর চট্টগ্রাম নগরীর দক্ষিণ বাকলিয়াতে জন্ম নেওয়া ফাহমিদা কামাল আইইউবি থেকে বিবিএ ও এমবিএ শেষ করেন। শিক্ষাজীবনে দুজনের পরিচয়। একসময় তা প্রেমের সম্পর্কে রূপ নেয়। এরপর ফাহমিদার শরীরে বাসা বাধে মারণঘাতী ক্যান্সার।

তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা এভারকেয়ার পরবর্তীতে ভারতের টাটা মেমোরিয়াল হসপিটালে নেওয়া হয়। সেখানে দীর্ঘ একবছর চিকিৎসার পর তার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা নেই, এ কথা জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা। গত ৯ মার্চ রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালের বেডে বিয়ে করেন ফাহমিদা ও মাহমুদুল।