সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০:১২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
বোয়ালখালীতে সীমানা দেয়াল ভেঙ্গে প্রবাসীর দোকান দখলে নেওয়ার অভিযোগ পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন: বোয়ালখালীতে চেয়ারম্যান হলেন যারা ভোটের তথ্যঁ সংগ্রহ করতে যাওয়া সাংবাদিকের ৮টি গাড়ি ভাঙচুর-বোয়ালখালি। বোয়ালখালীতে আ.লীগের ৪ বিদ্রোহীকে সাময়িক বহিষ্কার কালুরঘাট সেতুর আধুনিক নকশা!শিক্ষার্থী হিমায়েত কাউছার নির্বাচনকে ঘিরে কোনো ধরণের সহিংসতা চান না -হামিদুল হক মান্নান বহিরাগত’ লোকজন এলাকায় সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে – মোকারম চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি নির্যাতন:সিনিয়র জেল সুপার, জেলারের বিরুদ্ধে মামালা চকরিয়ার গায়ক চট্টগ্রাম শহরে এসে করেন চুরি চকরিয়া উপজেলার পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডে জমি দখলের চেষ্টা, এমপির হস্তক্ষেপে দখল বন্ধ

মাগুরায় বারোমাসি থাই আম চাষে সাফল্য

কালেরপত্র ডেষ্ক :

মাগুরায় বারোমাসি থাই আম চাষে সাফল্য পেয়েছেন সদর ও শালিখা উপজেলার কয়েকজন যুবক। অসময়ে আম বাজারজাত হওয়ায় দামও অনেক বেশি পাওয়া যায়। জেলায় এ আম চাষের সাফল্যের ফলে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ছে থাই জাতের আমের চাষ।

এই অসময়ে মাগুরার কয়েকটি আম বাগানে থোকায় থোকায় ঝুঁলছে আম। এ আম পাকতে পাকতেই গাছে দেখা যাবে আমের নতুন গুটি। সদর উপজেলার কয়েকটি স্থানে থাই বারোমাসি জাতের আম বাগানে দেখা যাচ্ছে এ দৃশ্য

আম চাষি কাশেম হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ২০১৮ সালের দিকে তিনি পরীক্ষামূলকভাবে নিজের জমিতে থাই বারোমাসি আমগাছ রোপণ করেন। একসময় গাছগুলোতে আম আসতে শুরু করে। আম সুস্বাদু হওয়ায় ভোক্তাদের আগ্রহ ও চাহিদা বাড়ায় দামও বাড়তে থাকে। অসময়ে এসব আম ২০০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরেও বিক্রি হয়ে থাকে বলে জানান তিনি।

শালিখার কয়েকজন আম চাষি জানান, বর্তমানে এক বিঘা জমিতে আমের চাষ করতে প্রাথমিক পর্যায়ে ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়। যা থেকে বছরে ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করা সম্ভব বলে জানান চাষিরা।

মাগুরা হর্টিকালচার সেন্টারের উদ্যানতত্ত্ববিদ রোকনুজ্জামান জানান, মাগুরা জেলায় প্রায় ৯০ বিঘা জমিতে বারোমাসি থাই আমের চাষ হচ্ছে। একটি গাছ থেকে বছরে তিনবার আম সংগ্রহ করা যায়। এ আম পাকলেও প্রাকৃতিক উপায়েই দীর্ঘ সময় সংরক্ষণ করা যায় বলেও জানান এ কৃষি কর্মকর্তা।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত