ঢাকা ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রথম দুই গোলে অবদান রাখার পর নিজেও পেলেন জালের দেখা

  • বার্তা কক্ষ ::
  • আপডেট সময় ০৭:১৬:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২১
  • ৫৮০ বার পঠিত

কালেরপত্র ডেষ্ক :

প্রথম দুই গোলে অবদান রাখার পর নিজেও পেলেন জালের দেখা। মোহামেদ সালাহর দারুণ নৈপূণ্যে নরিচ সিটিকে হারিয়ে নতুন মৌসুম শুরু করল লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগে শনিবার ক্যারো রোডে স্বাগতিকদের ৩-০ গোলে হারায় ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।
এই ম্যাচ দিয়ে ১০ মাস পর চোট কাটিয়ে দলে ফেরেন ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইক।

ম্যাচের ২৬তম মিনিটে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ডি-বক্সে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের পাস পেয়ে সালাহ দারুণ ছোঁয়ায় বাড়ান জটার দিকে। ডান পায়ের শটে দলকে এগিয়ে নেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

৬৫তম মিনিটে সাদিও মানের শট ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি চ্যাম্পিনশিপের সেরা হয়ে শীর্ষ লিগে উঠে আসা নরিচ। ডি-বক্সের ডান প্রান্তে বল পেয়ে ফিরমিনোকে আড়াআড়ি পাস দেন সালাহ। ডান পায়ের শটে সহজেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।
নয় মিনিট পর স্কোরলাইনে নিজের নাম লেখান সালাহ। এবার কর্নার ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি নরিচ। ডি-বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের উঁচু শটে দলের জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন মিশরের ফরোয়ার্ড সালাহ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রথম দুই গোলে অবদান রাখার পর নিজেও পেলেন জালের দেখা

আপডেট সময় ০৭:১৬:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২১

কালেরপত্র ডেষ্ক :

প্রথম দুই গোলে অবদান রাখার পর নিজেও পেলেন জালের দেখা। মোহামেদ সালাহর দারুণ নৈপূণ্যে নরিচ সিটিকে হারিয়ে নতুন মৌসুম শুরু করল লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগে শনিবার ক্যারো রোডে স্বাগতিকদের ৩-০ গোলে হারায় ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।
এই ম্যাচ দিয়ে ১০ মাস পর চোট কাটিয়ে দলে ফেরেন ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইক।

ম্যাচের ২৬তম মিনিটে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ডি-বক্সে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের পাস পেয়ে সালাহ দারুণ ছোঁয়ায় বাড়ান জটার দিকে। ডান পায়ের শটে দলকে এগিয়ে নেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

৬৫তম মিনিটে সাদিও মানের শট ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি চ্যাম্পিনশিপের সেরা হয়ে শীর্ষ লিগে উঠে আসা নরিচ। ডি-বক্সের ডান প্রান্তে বল পেয়ে ফিরমিনোকে আড়াআড়ি পাস দেন সালাহ। ডান পায়ের শটে সহজেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।
নয় মিনিট পর স্কোরলাইনে নিজের নাম লেখান সালাহ। এবার কর্নার ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি নরিচ। ডি-বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের উঁচু শটে দলের জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন মিশরের ফরোয়ার্ড সালাহ।